Breaking News

কথিত সাংবাদিক জিল্লুর রহমান রাসেল এর বিরুদ্ধে জেলা সমবায় ইউনিয়ন এর সভাপতিকে হুমকিসহ নানা অভিযোগ



ফরিদপুর প্রতিনিধি :

ফরিদপুরে একটি গনমাধ্যমের কথিত ক্যামেরা পার্সন জিল্লুর রহমান রাসেল এর বিরুদ্ধে জেলা পুলিস সুপার বরাবর তার বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট ভাবে অভিযোগ করেছেন ফরিদপুর জেলা সমবায় ইউনিয়ন (রেজিঃ নং-ঢাকা-৫১) নেতৃবৃন্দ।


অভিযোগে বলা হয়েছে, একটি অনুষ্ঠানের টাকা আদায় কে কেন্দ্র করে তারই জের ধরে উক্ত সংগঠনের সভাপতি শেখ ফয়েজ আহমেদসহ তাদের ইউনিয়নের নিয়ন্ত্রাধীন সংগঠন গুলোর বিরুদ্ধে নানামুখী ষড়যন্ত্র করে আসছে এবং তাদের নিকট পুনরায় অবৈধ ভাবে অর্থ দাবী করার অভিযোগ উঠেছে উক্ত কথিত সাংবাদিক জিল্লুর রহমান রাসেল ও অনুমোদনহীন স্যাটেলাইট টিভি চ্যানেল এস  এর ফরিদপুর প্রতিনিধি এস এম আকাশ এর বিরুদ্ধে। 


অভিযোগ এর বিবরনে প্রকাশ, গত ০৭/১১/২০২০তারিখে ফরিদপুরে একটি হলে জাতীয় সমবায় দিবস পালিত হয়। সেই অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেছিলেন ফরিদপুর জেলা সমবায় ইউনিয়ন এর সভাপতি ও ফরিদপুর প্রেস ক্লাবের সহ-সভাপতি শেখ ফয়েজ আহমেদ। উক্ত দিবস এর অনুষ্ঠান শেষে সময় আনুমানিক দুপুর ১২.৪৫ মিনিট ঘটিকায় যথাক্রমে জিল্লুর রহমান রাসেল, পিং মোঃ আব্দুল জলিল, গ্রামঃ পূর্ব খাবাশপুর,পোঃ ফরিদপুর,থানাঃ কোতায়ালী,জেলা ঃ ফরিদপুর বিটিভির ক্যামেরা পার্সন পরিচয় দিয়ে এবং এস এম আকাশ, পিতাঃ অজ্ঞাত, গ্রামঃ নড়িখালী,পোঃ জাহাপুর,থানাঃ মধুখালী, জেলাঃ ফরিদপুর (ফরিদপুর প্রতিনিধি,চ্যানেল এস স্যাটেলাইট টিভি-অনুমোদন বিহীন) নামক সাংবাদিক পরিচয় দিয়ে উক্ত দুই জন সমবায় দিবস উদযাপন কমিটির অর্থ বিষয়ক আহবায়ক বিরাজ মোহন কুন্ড এর নিকট থেকে তিন হাজার টাকা গ্রহন করে তাঁর তথ্য গোপন করে ফরিদপুর জেলা সমবায় ইউনিয়ন এর সভাপতি শেখ ফয়েজ আহমেদ এর নিকট থেকে পুনরায় ছয় হাজার টাকা পীড়া পিড়ি (এ সময় তিনি বিব্রত হোন) করে নেন জিল্লুর রহমান রাসেল। পরে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, উক্ত নামধারী সাংবাদিক জিল্লুর রহমান রাসেল অন্যান্য কাউকে কোন টাকা না দিয়ে নিজেই  সম্পূর্ণ উক্ত পরিমান টাকা আত্মসাৎ করেন। 


এ বিষয়টি নিয়ে ফরিদপুর জেলা সমবায় ইউনিয়ন এর সভাপতি শেখ ফয়েজ আহমেদ ফরিদপুর প্রেস ক্লাব এর সভাপতি,সাধারণ সম্পাদক ও অন্যান্য সিনিয়র সাংবাদিকদের বিষয়টি মৌখিক ভাবে অভিযোগ করেন। এই বিষয়টি পরবর্তীতে উক্ত দুই অভিযুক্ত ব্যক্তি ক্ষিপ্ত হয়ে ফরিদপুর জেলা সমবায় ইউনিয়ন ও  এর সদস্য ভুক্ত আর্থিক প্রতিষ্ঠানের  বিরুদ্ধে একটি কু-চক্রি মহলের প্ররোচনায় নানাভাবে এবং সামাজিক মাধ্যমে আর্থিক সংগঠনের বিরুদ্ধে অপপ্রচারসহ সমবায় সংগঠন গুলোর ক্ষতি করার জন্য নানামুখী ষড়যন্ত্র করে আসছে  বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে এবং গত ২৪ এপ্রিল জেলা সমবায় ইউনিয়ন এর সভাপতি শেখ ফয়েজ আহমেদ নিকট পুনরায় আরও অর্থ দাবী করা হয়েছে বলে লিখিত অভিযোগ পত্রে  উল্লেখ করা হয়েছে। 


ফরিদপুর জেলা সমবায় ইউনিয়ন (রেজিঃ নং-ঢাকা-৫১) এর অভিযোগ পত্র যাহার স্মারক নম্বর -২০/২১ এর কপি পাঠানো হয়েছে জেলা প্রশাসক, ফরিদপুর, চেয়ারম্যান, জেলা পরিষদ,ফরিদপুর,যুগ্ম-পরিচালক,এনএসআই, ফরিদপুর আঞ্চলিক কার্যালয়,ফরিদপুর, উপজেলা চেয়ারম্যান, ফরিদপুরসদর,উপজেলা নির্বাহী অফিসার, ফরিদপুর সদর,মেয়র, ফরিদপুর পৌরসভা, ফরিদপুর,সভাপতি, ফরিদপুর প্রেস ক্লাব, প্রতিনিধি,ডিজিএফআই, ফরিদপুরসহ বিভিন্ন মহলে।


এ বিষয়ে অভিযুক্ত জিল্লুর রহমান রাসেল এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি তিন হাজার টাকা নেওয়ার কথা স্বীকার করেন এবং অন্য অভিযোগ অস্বীকার করেন। 


অপর দিকে, অভিযুক্ত  এস এম আকাশ এর সাথে মোবাইলে যোগাযোগ করার চেষ্টা করা  হলে তিনি কল রিসিভ করেন নাই।


এ বিষয়ে ফরিদপুর জেলা সমবায় ইউনিয়ন এর সভাপতি শেখ ফয়েজ আহমেদ এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, একটি অনুষ্ঠানের টাকা নেওয়া কেন্দ্র করে তার বিরুদ্ধে প্রেস ক্লাবে অভিযোগ করা হলে তারা আমার উপর ক্ষুদ্ধ হয়ে আমাদের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালিয়ে ক্ষতি করার চেষ্টা করছেন এবং পুনরায় আরও টাকা দাবী করেছেন। বিষয়টি আইনগত ভাবে ইউনিয়ন এর পক্ষ হইতে সকলকে আমরা জানিয়েছি। 




No comments